ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট

কোর্সের মেয়াদ :

৬ মাস

কোর্স ফী :

২০,০০০/-

ক্লাসের সময় :

শনি, সোম, বুধ (সকাল- ১০টা)

ক্লাস শুরুর তারিখ :

On Going

অভিজ্ঞতাই আপনার সাফল্যের গতি নির্ধারণ করে দেবে। জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণে মনোযোগী ও কঠোর পরিশ্রম করুন আপনি অবশ্যই সফল হবেন। সফলতার জন্য চাই ইচ্ছাশক্তি, একাগ্রহতা ও কঠোর পরিশ্রম।

ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট

একজন ওয়েব ডিজাইন ডেভেলপারের কাজের ক্ষেত্র অনেক বড়। একজন ওয়েব ডিজাইনার যে ডিজাইন তৈরি করেন তার প্রতিটা উপকরণকে ফাংশনাল এবং ডাইনামিক করার জন্য পরিচালিত কর্মকান্ডই হচ্ছে Web Development।

আর ওয়েব ডেভেলপমেন্ট হচ্ছে একটা ওয়েব সাইটের প্রাণ সঞ্চার করা। বর্তমানে ওয়েব ডিজাইন ডেভেলপারদের চাহিদা বেড়েই চলেছে।তাই ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট কোর্স শেখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

আমাদের

কোর্স কারিকুলাম

HTML, CSS

সিএসএস এমন একটি ভাষা (Language) যা এইচটিএমএল ডকুমেন্টের স্টাইল বর্ণনা করে। সিএসএস বর্ণনা করে যে কীভাবে এইচটিএমএল উপাদানগুলি স্ক্রিন, বা অন্য মিডিয়ায় প্রদর্শিত হবে। Html এবং সিএসএস সবসময় একসাথে ব্যবহৃত হয়।সিএসএস এর কাজ হলো ওয়েব পেজটিকে আকর্ষিত করা বা ডিজাইন বা Layout তৈরী করা।HTML এবং CSS এই দুটি দিয়েই আপনি পুরো ওয়েবসাইট এর ডিসাইন করতে পারবেন। এক কথায় একটি সুন্দর ওয়েবসাইট ডিসাইন করতে হলে আপনাকে এই CSS Language খুব ভালো করে শিখতে হবে।এবং এই কোর্সের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের বেসিক শক্ত করার জন্য প্রজেক্ট ভিত্তিক কাজ করে দেখানো হবে।

BOOTSTRAP

দ্রুত এবং সহজতর ওয়েব ডেভেলপমেন্টের জন্য বুটস্ট্রাপ হলো একটি ফ্রি ফ্রন্ট-এন্ড ফ্রেমওয়ার্ক। বুটস্ট্রাপে ব্যবহার করা হয় এমন প্রায় সকল ক্লাস, টেমপ্লেট, টাইপোগ্রাফি, ফর্ম, বাটন, টেবিল, নেভিগেশন, মোডাল, ইমেজ ক্যারোসেল সহ আরো অনেক বিষয় নিয়ে । 

বুটস্ট্রাপ দিয়ে আপনি যে কোন এইচটিএমএল ডকুমেন্টকে রেস্পন্সিভ ডিজাইন করতে পারেন খুবই সহজে। যে কোন ওয়েবসাইটের রেস্পন্সিভ ডিজাইন করার জন্য বুটস্ট্রাপ হচ্ছে একটি সহজ এবং উন্নত সিএসএস ফ্রেমওয়ার্ক।

বুটস্ট্রাপ ব্যবহার করে সম্পূর্ণ একটি ওয়েব পেজ কিছু সময়ের ভিতর ডিজাইন করা সম্ভব। তাও শতভাগ রেস্পন্সিভ এবং মোবাইল ফ্রেন্ডলী।

WORDPRESS

ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে বর্তমান সময়ে সর্বধিক জনপ্রিয় ব্লগ পাবলিশিং অ্যাপ্লিকেশন এবং শক্তিশালী কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম। 

WordPress দেয়া অফিশিয়াল তথ্য মতে পৃথিবীর প্রতি ৩টার  মধ্যে ১টারও  বেশি ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে তৈরি করা হয় 

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে খুব সহজেই যে কোন ধরনের সাইট তৈরি করা যায়।

ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপমেন্ট কোর্সের মাধ্যমে আপনি কিভাবে চমৎকার থিম বানাতে হয় সেটা শিখতে পারবেন, সাথে বোনাস হিসেবে জানতে পারবেন ওয়ার্ডপ্রেসের অনেক কিছু।

PHP-MYSQL

পিএইচপি হচ্ছে একটি সার্ভার সাইড স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজ বা সার্ভার নিয়ন্ত্রিত স্ক্রিপ্টিং ভাষা। অর্থাৎ স্ক্রিপ্ট গুলোকে ইউজার দ্বারা কম্পিউটার থেকে নিয়ন্ত্রনের পরিবর্তে সার্ভার থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়।পিএইচপি ব্যবহারের ফলে ডাইনামিকালি সব কাজ হয়ে যায় বলে এটাকে ওয়েব ডেভেলপেমেন্ট ল্যাংগুয়েজ বলে থাকে।

এসকিউএল হচ্ছে রিলেশনাল ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম।এটি একটি প্রোগ্রামিং ভাষা। এই ভাষা’টি ব্যবহার করে আমরা ডাটাবেজ এবং টেবিল তৈরী করে, কিউরি চালিয়ে টেবিলে ডাটা প্রবেশ করতে পারি। এবং সেই টেবিল থেকে প্রয়োজনীয় ডাটা তুলে আনতে পারি।

কোর্সটা কি

আপনার জন্য?

আপনি কি একজন শিক্ষার্থী?

পড়াশোনার পাশাপাশি আইটি কাজের বাস্তবমুখী শিক্ষা একজন শিক্ষার্থীর বর্তমান এবং ভবিষ্যতকে উজ্জ্বল করবে এবং বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা বা কাজের সুযোগ করে দিবে এতে কোন সন্দেহ নেই। বরং পড়াশোনার পাশাপাশি অনেক শিক্ষার্থী বিভিন্ন খন্ডকালিন কাজ করতে চান। আইটি কোন কাজে দক্ষ হলে একজন শিক্ষার্থী পড়াশোনার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক মার্কেটে কাজ করতে পারেন এবং নিজের পড়াশোনার খরচ নিজেই বহন করতে পারেন।

আপনি কি একজন গৃহিণী?

অনেক শিক্ষিত গৃহিণী গৃহস্থালির কাজের পাশাপাশি কোন কাজ করে আয় করতে চান। কিন্তু তারা চাইলেও নানা সমস্যার কারণে কোন চাকুরী বা ব্যাবসায় যুক্ত হতে পারেন না। তাদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং হতে পারে সবচেয়ে উপযুক্ত একটি মাধ্যম। একজন গৃহিণী আইটি দক্ষতা অর্জন করে প্রতিদিন বা সুবিধা মত সময়ে কাজ করে আয় এবং নিজের একটি পরিচয় তৈরি করতে পারেন।

আপনি কি একজন চাকুরীজীবী?

বর্তমানে চাকুরী করে অনেকেই হয়তো নিজের সকল প্রয়োজন মেটাতে হিমিশিম খাচ্ছে। অনেকে হয়তো চাকুরীই করতে চাচ্ছেন না, নিজে কিছু করতে চাচ্ছেন। অনেকে হয়তো চাকুরীর পরের সময় গুলো কাজে লাগাতে চাচ্ছেন। প্রতিদিন ৩/৪ ঘণ্টা সময় দিলে যে কোন আইটি কোর্সের মাধ্যমে কাজ শিখে ফ্রিল্যান্সিং করে আপনার বাড়তি আয়ের চাহিদা মেটানো সম্ভব।

আপনি কি একজন উদ্যোক্তা?

আপনি যে কোন ব্যাবসা করেন না কেনো, আপনার বিভিন্ন আইটি কাজের প্রয়োজন হবেই। আপনার নিজের যদি ভালো কাজের আইডিয়া থাকে তবে সেটা অন্যের মাধ্যমে সফল ভাবে সম্পন্ন করতে পারবেন। কিন্তু আপনি নিজে যদি কোন আইটি দক্ষতা না রাখেন, তাহলে বর্তমান সময়ে যে কোন ব্যাবসা বা নতুন কোন আইডিয়া নিয়ে কাজ করলে সাফল্য অর্জন করা খুবই কঠিন হয়ে যাবে।

শিক্ষার্থীদের জন্য

বিশেষ সাপোর্ট ব্যাবস্থা

শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন টপিক ক্লাসের পরেও আরো বিস্তারিত জানতে চায়। ক্লাসে দেয়া এ্যাসাইনমেন্ট করার সময় কোন জায়গায় আটকে যেতে পারে। এই সময় একটু সাপোর্ট হলে তারা কাজ সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারেন। আবার কোর্স শেষে ক্লায়েন্ট এর কাজ করার সময়েও সাপোর্ট প্রয়োজন হয়। তাই স্টাডিটেক তার সকল শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ সাপোর্ট ব্যাবস্থার আয়োজন রেখেছে। এই সাপোর্ট লাইফটাইম সম্পুর্ন বিনামূল্যে প্রদান করা হবে।

অনলাইন লাইভ সাপোর্ট

প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত সাপোর্ট লিঙ্কে ক্লিক করে সাপোর্ট প্ল্যাটফর্মে জয়েন করতে পারবেন এবং সেখানে মেন্টর থাকবেন লাইভ সাপোর্ট দেওয়ার জন্য। নিজের স্ক্রিন শেয়ার করে বা স্কাইপ কলের মাধ্যমেও মেন্টর সাহায্য করবে।

অফলাইন সাপোর্ট

স্টাডিটেক এর যে কোন শিক্ষার্থী, সে অনলাইন লাইভ কোর্সের হোক কিংবা অফলাইন কোর্সের হোক। শিখবে সবাই এর যে কোন ক্যাম্পাসে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত সাপোর্টের জন্য আসতে পারবেন। ক্যাম্পাসে সাপোর্ট সেন্টারে বসে মেন্টর এর কাছ থেকে সরাসরি কাজ বুঝে নেওয়া যাবে।

আমাদের

শিক্ষার্থীদের সফলতার গল্প

আর্নিং এর শর্টকাট ওয়ে না খুঁজে দক্ষতা বৃদ্ধিতে মনোযোগ দিন। স্কিল ডেভেলপ করে নিজেকে একজন দক্ষ আইটি স্পেশালিস্ট হিসেবে গড়ে তুলুন। কাজ খুঁজতে হবে না আপনার। কাজই আপনার পিছনে ছুটবে।

ছোটবেলায় একটা কবিতা পড়েছিলাম, পারিব না এ কথাটি বলিও না আর একবার না পারিলে দেখো শতবার। আমরা যে কোন কাজ তিন চার বার করার পর আমরা ঐ কাজ থেকে সরে আশি। আমরা হতাশ হয়ে পড়ি, মনে করি এ কাজটি আমার দ্বারা সম্ভব না। কিন্তু কথাটা মিথ্যা। মানুষ পারেনা এমন কোন কাজ নেই। চেষ্টা করলে সবই সম্ভব।  কেউ দ্রুত সাকসেস হয় আবার কেউ খুব দেরিতে সাকসেস হয়। আপনি যে কোন কাজ করেন না কেন, ওই কাজে কঠোর পরিশ্রম ও সময় দিলে অবশেষে আপনাকে কিছু দেবে।
 
আমাদের স্টুডেন্টদের সাকসেস স্টোরি দেখতে এই গ্রুপ ভিজিট করুনঃ

আমাদের শিক্ষার্থীরা

কোথায় কাজ করেন?

ফাইভার

নতুন শিক্ষার্থীদের জন্য ফাইভার মার্কেটপ্লেস খুবই জনপ্রিয়। কারন এখানে নতুনরা সহজেই ছোট ছোট কাজ দিয়ে নিজের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন। এখানে কাজের নির্দিষ্ট প্যাকেজ বা গিগ করা থাকে যা ক্ল্যায়েন্ট এবং ফ্রিল্যান্সার উভয়ের জন্যই সুবিধাজনক। শুধু ছোট কাজ নয়, পর্যায়ক্রমে এখানে বড় বড় কাজ ও পেতে শুরু করেন ফ্রিল্যান্সার রা। আমাদের শিক্ষার্থীরা গড়ে প্রতি মাসে প্রায় ৪০০ ডলার এর মতো আয় করে থাকেন।

আপওয়ার্ক

আপওয়ার্ক একটি বড় আন্তর্জাতিক কাজের বাজার। এখানে বড় বড় কোম্পানি গুলো আউটসোর্সিং করে কাজ করায়। আমাদের অনেক শিক্ষার্থী এই মার্কেটে টপ রেটেড ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করছেন। তুলনামূলক এখানে কাজের মূল্য একটু বেশী পাওয়া যায়।

রিমোট জব

বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে ভালো মানের কাজ সরবরাহ করার ফলে আমাদের শিক্ষার্থীদের সাথে ক্লায়েন্ট এর অনেক ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়ে যায়। মার্কেটপ্লেসের বাইরেও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনেক ক্লায়েন্ট এর কাজ করে থাকেন আমাদের শিক্ষার্থীরা। এর ফলে অনেক ক্ল্যায়েন্ট মাসিক চুক্তি করে কাজ করায় যেটা চাকুরীর মতো। আমাদের শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশে বসেই সেই সকল ক্লায়েন্ট দের ফুল টাইম বা চুক্তিবদ্ধ কাজ করে থাকেন যাকে বলা হয় রিমোট জব। রিমোট জবে একজন ফ্রিল্যান্সার গড়ে মাসে ৫০০ থেকে ১০০০ ডলার করে থাকে।

লোকাল জব

আন্তর্জাতিক বাজার ছাড়াও বাংলাদেশেও কিন্তু আইটির বিভিন্ন কাজ থাকে। মূলত দেশীয় ছোট এবং মাঝারী ব্যাবসায়ি প্রতিষ্ঠান গুলো আউটসোর্সিং করেই কাজ করায়। আমাদের অনেক শিক্ষার্থী এরকম লোকাল অনেক কাজ করে থাকেন। এখন মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে সহজেই পেমেন্ট নেওয়া যায়। আবার চাইলে সরাসরি কথা বলেও অনেকে লোকাল বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজ করছেন। এখানে সুবিধা হচ্ছে কাউকে কোন কমিশন দিতে হয় না যেটা উপরের সকল মাধ্যমেই প্রযোজ্য।

কিভাবে

শুরু করবেন?

আপনার পছন্দের কোর্সে পেমেন্ট করুন

আন্তর্জাতিক বাজার ছাড়াও বাংলাদেশেও কিন্তু আইটির বিভিন্ন কাজ থাকে। মূলত দেশীয় ছোট এবং মাঝারী ব্যাবসায়ি প্রতিষ্ঠান গুলো আউটসোর্সিং করেই কাজ করায়। আমাদের অনেক শিক্ষার্থী এরকম লোকাল অনেক কাজ করে থাকেন। এখন মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে সহজেই পেমেন্ট নেওয়া যায়। আবার চাইলে সরাসরি কথা বলেও অনেকে লোকাল বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজ করছেন। এখানে সুবিধা হচ্ছে কাউকে কোন কমিশন দিতে হয় না যেটা উপরের সকল মাধ্যমেই প্রযোজ্য।

আপনার ইমেইলে ক্লাসের লিঙ্ক দেখুন

অর্থহীন লেখা যার মাঝে আছে অনেক কিছু। হ্যাঁ, এই লেখার মাঝেই আছে অনেক কিছু। যদি তুমি মনে করো, এটা তোমার কাজে লাগবে, তাহলে তা লাগবে কাজে। নিজের ভাষায় লেখা দেখতে অভ্যস্ত হও। মনে রাখবে লেখা অর্থহীন হয়, যখন তুমি তাকে অর্থহীন মনে করো; আর লেখা অর্থবোধকতা তৈরি করে, যখন

নির্দিষ্ট সময়ে ক্লাস করুন

অর্থহীন লেখা যার মাঝে আছে অনেক কিছু। হ্যাঁ, এই লেখার মাঝেই আছে অনেক কিছু। যদি তুমি মনে করো, এটা তোমার কাজে লাগবে, তাহলে তা লাগবে কাজে। নিজের ভাষায় লেখা দেখতে অভ্যস্ত হও। মনে রাখবে লেখা অর্থহীন হয়, যখন তুমি তাকে অর্থহীন মনে করো; আর লেখা অর্থবোধকতা তৈরি করে, যখন

কম্পিউটারের নুন্যতম যোগ্যতা

মূলত যে কোন ডিভাইস যেমন ডেস্কটপ কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল কিংবা ট্যাব থেকেও আমাদের অনলাইন লাইভ ক্লাসে যোগ দিতে পারবেন। কিন্তু কাজ করার জন্য আপনার কম্পিউটার থাকা বাধ্যতামূলক। সর্বনিম্ন ৪ জিবি র‍্যাম এবং Core i3 প্রসেসর হলে কোর্সের কাজ গুলো করতে পারবেন। কিন্তু এর থেকে বেশী গতিসম্পন্ন কম্পিউটার হলে আপনার কাজ করতে সুবিধা হবে, কিন্তু বাধ্যতামূলক নয়।

যোগাযোগ করুন

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে বা কোন কিছু জানার থাকলে নির্দিধায় নিচের ফর্মটি পূরণ করুন। আমাদের দক্ষ প্রতিনিধি আপনাদের সকল প্রশ্নের সঠিক তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করবেন। মাঝে মধ্যে আমাদের প্রতিনিধি রা ব্যাস্ত থাকার কারণে আপনার প্রশ্নের উত্তর পেতে দেরি হলে আমরা তার জন্য আন্তরিক ভাবে দুঃখিত। ততক্ষণে আপনি আমাদের ফেইসবুক পেইজ এবং ফেইসবুক গ্রুপ দেখতে থাকুন।

Study Tech is a freelancing training institute in Bangladesh that provides the Best IT Training. Our main goals are if you follow all of our study methods, strategy, and instruction, you will gain success in online marketplaces as a successful freelance career.
Contact Info
Address

Dudu Market, Goderpara Bazar. Bogra. Bangladesh

Phone

01756766062, 01827652103

Email

studytechbd@gmail.com